হাড়ের গুড়া সার কি কেন এটি উদ্ভিদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ? | Bone Meal Fertilizer Benefits

Last updated on July 12th, 2024 at 10:57 pm

বর্তমানে কৃষিতে, বিশেষত ছাদ বাগান অথবা দীর্ঘ মেয়াদী চাষে, এক অত্যন্ত প্রশংসনীয় জৈব সারের নাম হাড়ের গুঁড়ো। এটি যেমন পরিবেশ-বান্ধব, তেমনি ফলপ্রসূ। আমরা ছাদ বাগানে বিভিন্ন প্রকারের সার ব্যবহার করে থাকি, গাছের প্রয়োজনীয় NPK(নাইট্রোজেন, ফসফরাস এবং পটাশ) উপাদান গাছগুলি নিজেরাই সংগ্রহ করে। আজ আমরা জানবো ফসফরাসের প্রাকৃতিক উৎসগুলো কোথায় পাওয়া যায়।

হাড়ের গুড়া একটি প্রাকৃতিক জৈব সার যা ফুল, ফল, সবজি গাছের স্বাস্থ্যের উন্নতি অর্থাৎ কোষকে মজবুত করতে সহায্য করে, যা প্রানীর হাড় থেকে উৎপাদিত হয়। সাধারণত পশুর হাড়কে নির্দিষ্ট আকারে গুড়ো করে এটি তৈরি করা হয়। হাড়ের গুড়ায় নাইট্রোজেন, ফসফরাসের এবং ক্যালসিয়াম উপাদান রয়েছে যা গাছে স্বাস্থ্যের উন্নতিতে সহায়তা করে। এটি রক্তসার ও ফিসবোন এর থেকেবেশি সুবিধা প্রদান করে।

হাড়ের গুড়া সার কি কেন এটি উদ্ভিদের জন্য গুরুত্বপূর্ণ? | Bone Meal Fertilizer Benefits

পশুর হাড় গুঁড়ো করার পর সেগুলি সিদ্ধ করে তৈরী করা হয় হাড়ের গুঁড়ো এবং এটি গুড়ো করে ফেলাতে গাছের পুষ্টি ধীরে ধীরে মাটিতে কাজ করে এবং দ্রুত ফসলের পরিবর্তে গাছগুলিকে গুরুত্বপূর্ণ ফসফরাস এবং ক্যালসিয়ামের গাছকে দীর্ঘদিন সরবরাহ করে। কিছু রাসায়নিক সারের থেকে ভিন্ন, আপনি বেশি মাত্রায় হাড়ের গুড়া প্রয়োগ করলে ও গাছগুলিকে পোড়াবে না। গাছের জন্য হাড়ের গুঁড়োর মূল উপাদান হচ্ছে ফসফরাস যেটা গাছের ফুল বা ফলকে বড় হতে সাহায্য করে। ফসফরাস কার্যকরভাবে গাছের বৃদ্ধি এবং সালোকসংশ্লেষণে সহায়তা করে। ক্যালসিয়াম স্বাস্থ্যকর কোষ গঠনের জন্য অতিপ্রয়োজনীয় এবং গাছপালা গুলিকে অন্যান্য উপাদান বজায় রাখতে সহায়তা করে। হাড়ের গুড়োয় NPK অনুপাত ৩:১৫:০ এর কাছাকাছি। এর মানে নাইট্রোজেন(N) এবং পটাসিয়াম(K) এর মাত্রা কম, কিন্তু ফসফরাস(P) এর মাত্রা অনেক বেশি। হাঁড়ের গুড়োর পাশাপাশি শিং কুচি প্রাকৃতিক পণ্য নাইট্রোজেন সমৃদ্ধ সার যেটি ধীরে ধীরে মাটিতে মিশে খাদ্য সরবরাহ করে।

[আরও পড়ুন: অনুখাদ্য কি – গাছের জীবন ধারণের জন্য অনুখাদ্যের ভূমিকা]

হাড়ের গুড়া ব্যবহারের কারণ:

  • হাড়ের গুড়া মাটিতে ক্যালসিয়াম, ফসফরাস এবং অল্প মাত্রায় নাইট্রোজেন সরবরাহ করে থাকে।
  • মাটিতে ফসফরাসের অভাব দেখা দিলে পরিমান মত হাড়ের গুড়া প্রয়োগের ফলে গাছে ফসফরাসের ঘাটতি জনিত সমস্যা দুর হয়।
  • স্বাস্থ্যকর কোষ গঠনের জন্য ক্যালসিয়াম অতি প্রয়োজনীয় উপাদান যা হাড়ের গুড়া সরবহার করে ।
  • এমনকি যদি গাছে ফুল না আসে বা খুব কম পরিমাণে আসছে, তবে আপনি এই হাড়ের গুড়া ব্যবহার করতে পারেন, এই হাড়ের গুড়া গাছের ফুল ফোটার ক্ষমতা বাড়ায় এবং ফুল ও ফল ঝড়ে পড়া রোধ করে।
  • গাছে নতুন পাতা বা ডালের সংক্ষা বৃদ্ধি না পেলে, আপনার উদ্ভিদে হাড়ের গুঁড়া ব্যবহার করতে পারেন, যা পাতা, কান্ড এবং পুরো গাছের বৃদ্ধির জন্য খুবই উপকারী ।
  • পাশাপাশি এটি গাছের শিকড় বৃদ্ধি করে এবং এটিকে শক্তিশালী করে।
  • গাছের কান্ড ও পাতার রং গাড় সবুজ করে।
  • গাছে পোকামাকড় বা ছত্রাকের ক্রমাগত ঘটলে হাড়ের গুড়া সরবহার ব্যবহার করতে পারেন, এটি ব্যবহার করলে গাছে পোকামাকড় বা ছত্রাক হওয়ার সম্ভাবনা অনেক কমে যায়।
  • গাছে হাড়ের গুড়া ব্যাবহার করলেও কুকুর বা বিড়ালের মতো কোনো প্রাণীর দ্বারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়।
  • গাছের পূর্ণ বৃদ্ধির জন্য , কুশির সংখ্যা বাড়াতে , ফলন বৃদ্ধি করতে, ফলের আকার বৃদ্ধিতে, ফুল ও ফল ঝড়ে পড়া রোধ করতে,স্বাস্থ্যকর কোষ গঠনের জন্য এমনকি যদি গাছে ফুল না আসে সর্বক্ষেত্রে সময় মতো হাড়ের গুঁড়া ব্যবহার করতে হবে।
  • হাড়ের গুঁড়া থেকে ধীরে ধীরে খাদ্য উপাদানগুলো অবমুক্ত হয় তাই হড়ের গুঁড়া থেকে গাছ ধীরে ধীরে খাদ্য গ্রহণ করতে পারে ।
  • হাড়ের গুঁড়া পরিবেশ বান্ধব কারণ এটি সম্পূর্ণ প্রাকৃতিক উপাদান থেকে তৈরি করা হয়ে থাকে।
  • গাছ যে সকল অত্যাবশ্যকীয় বিভিন্ন ম্যাক্রে ও মাইক্রো খাদ্য উপাদান মাটি থেকে পায় তা হাড়ের গুড়ো থেকে গাছ সহজেই পেয়ে থাকে।
  • যে সকল গাছ দীর্ঘদিন টবে থাকে সে সব গাছের জন্য হাড়ের গুড়ো অত্যন্ত প্রয়োজনীয় উপাদান।

হাঁড়ের গুড়া ব্যাবহারের নিয়ম:

  • ৬-৮ ইঞ্চটবের জন্য অধা মুঠো এবং ১২ ইঞ্চ টবের মাটিতে মাটিতে এক মুঠো ।
  • গাছের গোড়ার মাটি এক থেকে দেড় ইঞ্চি খোঁড়ার পর টবের সাইড দিয়ে পরিমাণ মত হাড় গুড়ো ছিটিয়ে দিতে হবে তারপর কোন কিছুর দ্বারা হাড়গুড়ো এবং মাটি মিশিয়ে, পর্যাপ্ত পরিমাণে জল প্রয়োগ করতে হবে।
  • হাঁড়ের গুড়া মাটির সাথে মিশতে ২৫-৪০ দিন সময় নিতে পারে।
হাড়ের গুড়ো বা Bone Meal কি
হাড়ের গুঁড়ো কি

হাঁড়ের গুড়া ব্যাবহারের সুবিধা:

হাঁড়ের গুড়া অতিরিক্ত মাত্রায় ব্যাবহার করলে ও গাছ ক্ষতিগ্রস্থ হয় না, যেখানে রাসায়নিক সার ওভারডোজ দেওয়ার ফলে মাটির পিএইচ স্তরকে অ্যাসিডিকের পরিবর্তে ক্ষারীয় করে তুলতে পারে, ফলে গাছ ক্ষতিগ্রস্থ হয়, অনেক সময়ে গাছ মাড়াও যেতে পারে। বোনমিল বা হাঁড়ের গুড়া সার ব্যবহার করবেন, দুই থেকে তিন চামচ বেশি ব্যবহার করবেন না এবং একবার ব্যবহার করার দেড় থেকে দুই মাস পরে পুনরায় ব্যবহার করুন।

হাড়ের গুঁড়ো সারের বিকল্প কি কি?

হাড়ের গুঁড়ো সারের বিকল্প হিসেবে মাছের আঁশ ও কাঁটা, রক ফসফেট এবং অন্যান্য জৈব সার ব্যবহার করা যেতে পারে।

প্রিয় পাঠক, এই প্রতিবেদনটি পঠন করবার জন্য আপনাকে অনেক ধন্যবাদ। আপনার মতো পাঠকের সহযোগিতা “ক্রিয়েটিভিটি গার্ডেনিং” সর্বদা কাম্য করে। গাছই আমাদের একমাত্র সম্পদ যা আমাদের ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে সুরক্ষিত করতে পারে, বাঁচিয়ে রাখতে পারে। নিঃস্বার্থে গাছ ভালবাসুন, সকলকে গাছ লাগাতে উৎসাহিত করুন।

আপনাদের যদি এই বিষয়ে কোন প্রশ্ন থাকে তাহলে অবশ্যই কমেন্ট বক্সের মাধ্যমে আমাকে জানাতে পারেন। সেগুলোর সমাধান করাবার আমি যথাসাধ্য চেষ্টা করব। আপনার মূল্যবান রেটিং দিয়ে উৎসাহিত করুন, সবাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ, সবাই খুব ভালো থেকো নমস্কার।

FAQ [Frequently Asked Questions]

হাড়ের গুঁড়ো সার কি?

হাড়ের গুঁড়ো একটি জৈব সমৃদ্ধ সার, যা পশুর হাড় থেকে তৈরি করা হয়। এটি ফসফরাস এবং ক্যালসিয়ামের একটি গুরুত্বপূর্ণ উৎস যা গাছকে দীর্ঘদিন সরবরাহ করে উদ্ভিদের স্বাস্থ্যের উন্নতিতে সহায়তা করে।

হাড়ের গুঁড়ো সারের উপকারিতা কি?

এটি ফসফরাস সমৃদ্ধ হওয়ায় উদ্ভিদের শিকড়ের উন্নতি এবং ফুল ফোটাতে সাহায্য করে। এছাড়াও এটিতে ক্যালসিয়াম সামগ্রী থাকায় ফুলের শেষ পচনের মতো সাধারণ উদ্ভিদ সমস্যা প্রতিরোধে সহায়তা করে। হাড়ের গুঁড়ো মাটিতে ধীরে ধীরে মিশে গাছের পুষ্টি সরবরাহ করে। মাটির পিএইচ স্তর উন্নত করে।

কোন গাছের জন্য হাড়ের গুঁড়ো সার উপযুক্ত?

হাড়ের গুঁড়ো সার মূলত ফুলগাছ, ফলের গাছ, সবজি এবং অন্যান্য সজীব গাছের জন্য উপযুক্ত। এটি বিশেষ করে টিউলিপ, গোলাপ এবং টমেটো গাছের জন্য খুবই উপকারী।

কীভাবে হাড়ের গুঁড়ো সার প্রয়োগ করতে হয়?

গাছের গোড়ার চারপাশে কিছু মাটি খুঁড়ে হাড়ের গুঁড়ো ছিটিয়ে দিন। এবার মাটির সাথে ভালোভাবে মিশিয়ে দিয়ে জল দিন।

গাছে কতটা পারিমাণ গুঁড়ো সার ব্যবহার করা উচিত?

গাছের বয়স এবং মাটিতে জৈব উপাদানের পরিমাণ নির্ণয় করে তবেই গাছে প্রয়োজন অনুসারে পরিমাণ নির্ধারণ করা উচিত।

হাড়ের গুঁড়ো কতদিন পর পর প্রয়োগ করা উচিত?

সাধারণত প্রতি ছয় মাসে একবার হাড়ের গুঁড়ো সার প্রয়োগ করা উচিত। তবে মাটির উর্বরতা এবং গাছের প্রয়োজন অনুসারে সময় নির্ধারণ করা উচিত।

হাড়ের গুঁড়ো কোথায় পাওয়া যায়?

হাড়ের গুঁড়ো সার সাধারণত নার্সারি, বাগান সরঞ্জাম দোকান এবং অনলাইন প্ল্যাটফর্মে পাওয়া যায়।

আপনার মূল্যবান রেটিং দিয়ে উৎসাহিত করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *